মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:৫১ পূর্বাহ্ন

৮৪০ ইউপিতে ভোট শুরু সংঘাতময় পরিস্থিতির শঙ্কা

অনলাইন ডেক্স
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০২১

গতকাল শনিবারও দেশের বিভিন্ন স্থানে নির্বাচন নিয়ে সংঘাতের খবর পাওয়া গেছে। কুমিল্লায় সীমান্তবর্তী এলাকায় একটি বাড়ি থেকে ২৯টি ককটেল উদ্ধার করা হয়েছে। জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়ি আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ভোলা সদরে এক চেয়ারম্যান প্রার্থীর দুই কর্মীকে কোপানো হয়েছে। আর তজুমদ্দিনে দুই ইউপি সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে ৩০ জন আহত হয়েছেন।

এবার ছয় ধাপে দেশে চার হাজার ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোট হচ্ছে। এ পর্যন্ত পাঁচ ধাপের ভোটে ৩৪৮ জন চেয়ারম্যান বিনা ভোটেই নির্বাচিত হয়েছেন। এর মধ্যে চতুর্থ ধাপে বিনা ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন ৪৮ জন চেয়ারম্যান। এই ৪৮টি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে আজ ভোট হচ্ছে না।

কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলায় ভারতের সীমান্তবর্তী একটি বাড়িতে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে ২৯টি ককটেল, সাতটি রামদা, একটি চায়নিজ কুড়াল ও বোমা তৈরির বিপুল সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে। গতকাল পাঁচথুবী ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের গোলাবাড়ি এলাকার জসিম উদ্দিনের বাড়িতে ওই অভিযান চালানো হয়। এ সময় সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ পাঁচথুবী ইউপি নির্বাচনে ভোট গ্রহণ হবে। ওই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কেউ অরাজকতা সৃষ্টির লক্ষ্যে বোমা ও দেশীয় অস্ত্র মজুত করছিলেন বলে স্থানীয়রা ধারণা করছেন। অস্ত্র উদ্ধার ও গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন র‌্যাব-১১ কুমিল্লার কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন।

আগের দিন শুক্রবার জেলার বরুড়ার ঝলম ইউনিয়নের ডেউয়াতলীতে নির্বাচনী সহিংসতায় ৩৯টি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয় হামলাকারীরা।

জামালপুরের সরিষাবাড়ীর মহাদান ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আবদুল্লাহ আল মামুনের বাড়িতে অগ্নিসংযোগের অভিযোগ উঠেছে। গতকাল দুপুর ১২টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা প্রায় এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

আবদুল্লাহ আল মামুনের অভিযোগ, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আনিছুর রহমানের সমর্থকেরা বিলবালিয়া এলাকায় অবস্থিত তাঁর একটি টিনের ঘরে আগুন দিয়েছেন। নির্বাচনের এক দিন আগে আগুনে ওই ঘরে থাকা সব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ঘরের পোড়া কয়েকটি টিন অবশিষ্ট আছে কেবল। অভিযোগের বিষয়ে জানতে নৌকার প্রার্থী আনিছুর রহমানের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন ধরেননি।

ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার সোনাপুর ইউপিতে ২ নম্বর ওয়ার্ডের দুই সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের পাল্টাপাল্টি হামলা-সংঘর্ষে ৩০ জন আহত হয়েছেন। প্রচারণা বন্ধের পরে প্রচারণা চালাতে গিয়ে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয় বলে স্থানীয় লোকজন জানিয়েছেন। প্রার্থীরা হলেন আরিফুর রহমান তালুকদার (মোরগ) ও মেজবাহউদ্দিন ফারুক পালওয়ান (ফুটবল)। সোনাপুর ইউপিতে ১৯ বছর পর আজ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় ভোট ছাড়াই আওয়ামী লীগের প্রার্থী জিতে গেছেন।

এদিকে ভোলা সদর উপজেলার রাজাপুর ইউপিতে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থীর বিরুদ্ধে ‘বিদ্রোহী’ চেয়ারম্যান প্রার্থীর দুই কর্মীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে। গত শুক্রবার সদর উপজেলার জনতাবাজারে এ ঘটনা ঘটে। হামলায় আহত দুজন হলেন গিয়াসউদ্দিন ও আবদুস সালাম। তাঁরা রাজাপুর ইউনিয়নের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল হক মিঠু চৌধুরীর কর্মী। নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. মিজানুর রহমান তাঁর বিরুদ্ধে আনা প্রতিপক্ষের প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। সদর উপজেলার ১২টি ইউপিতে আগামী ৫ জানুয়ারি পঞ্চম ধাপে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

[প্রতিবেদন তৈরিতে তথ্য দিয়ে সহায়তা করেছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার প্রতিনিধিরা]

সূত্রঃ প্রথম আলো

Please Share This Post in Your Social Media

এ বিভাগের আরো সংবাদ