মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৫৭ পূর্বাহ্ন

পটিয়ায় সন্ত্রাসী হামলায় ৪ জন গুলিবিদ্ধসহ আরো ৫ আহত

প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৬ আগস্ট, ২০২১

এবি রহমান, পটিয়া প্রতিনিধিঃ

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ছনহরা ইউনিয়নের গুয়াতলী গ্রামের দানুমিয়া মার্কেটের সামনে একটি মোবাইল চুরির ঘটনা নিয়ে সন্ত্রাসী হামলায় ৪ জন গুলিবিদ্ধসহ আরো ৫ জন আহত হয়েছেন। আহতদের বুধবার (২৫ ‍আগস্ট) রাত ১০টার দিকে পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হয়। বুধবার রাত ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২৬ ‍আগস্ট) সকালে এজাহারনামীয় তিনজনের নাম ‍উল্লেখ ও অজ্ঞাতনামা ৭-৮ জনকে আসামি করে এলাকার মোরশেদ আলম বাদী হয়ে পটিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। বিবাদীরা হলেন- উপজেলার ছনহরা ইউনিয়নের গুয়াতলী গ্রামের আহমদুল হকের ছেলে সিরাজুল হক (৩৫) ভাটিখাইন গ্রামের মোহাম্মদ রায়হান (২৮) পৌর সদরের জাপা নেতা সামশুল আলম মাস্টারের ছেলে মাইনুল ইসলাম (২৮) এবং অজ্ঞাতনামা ৭-৮ জন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২৩ আগস্ট ছনহরা এলাকার বাদী মোরশেদ আলমের ভগ্নিপতী সাইফুর হকের একটি মোবাইল সিরাজুল হক চুরি করে নিয়ে যায়। এ ব্যাপারে স্থানীয়ভাবে বৈঠক করা হলেও মোবাইলটি ফেরত দেয়নি। এ ঘটনার জের ধরে বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে আসামিরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে গুয়াতলী এলাকার দানুমিয়া মার্কেট এলাকায় মোরশেদ আলমকে পেয়ে মারধর করতে থাকে। এ সময় তার শোর-চিৎকার শুনে তার চাচা রাশেদ আলম প্রতিবেশী আবদুল্লাহসহ স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধারে এগিয়ে এলে তাদেরও ব্যাপক মারধর করে। একপর্যায়ে তাদের হাতে থাকা বন্দুক থেকে এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। এ সময় রাশেদ আলম (৪৪) মোরশেদ আলম (৩৫) মোঃ- আবদুল্লাহ (৩৫) সহ কয়েকজন গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাদের পটিয়া হাসপাতালে চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়। খবর পেয়ে রাতে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

এ বিষয়ে পটিয়া থানার ওসি রেজাউল করিম মজুমদার জানান, এ ঘটনায় গুয়াতলী গ্রামের মোরশেদ আলম বাদী হয়ে তিনজনের নাম ‍উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ৭-৮ জনকে আসামি করে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে মামলা দায়ের করেন। আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

এ বিভাগের আরো সংবাদ