শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৪২ পূর্বাহ্ন

নামায শেষে মসজিদ থেকে ফিরেই স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করলেন মানসিক ভারসাম্যহীন স্বামী

জুবায়ের খন্দকার, ময়মনসিংহ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ফজরের নামায শেষ করে মসজিদ থেকে ফিরেই ২৯ সেপ্টেম্বর বুধবার ভোরে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার মাওহা ইউনিয়নের বীর আহাম্মদপুর গ্রামের ললিতা বেগম (৪০)-নামের এক গৃহবধূকে দায়ের কোপ হত্যা করেছেন মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক (৫০)-নামের ওই মহিলার ভারসাম্যহীন স্বামী। আর এ ঘটনায় নিহত মহিলার ভারসাম্যহীন স্বামীকে আটক করেছে গৌরীপুর থানা পুলিশ।

নিহত ললিতা বেগম নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার মোঃ নায়েব আলী ফকিরের মেয়ে। এবং আটককৃত মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক গৌরীপুর উপজেলার মাওহা ইউনিয়নের বীর আহাম্মদপুর গ্রামের আবুল তালুকদারের ছেলে। তাদের সংসারে ৪টি কন্যা সন্তান রয়েছে বলে জানা গেছে।

নিহতের ছোট ভাই শামীম আহম্মেদ বলেন-মোঃ রফিকুল ইসলামের সাথে তার বোনের কোন বিরোধ ছিল না। তবে কিছুদিন আগে তার দুলাভাই সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হন। এরপর থেকে মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিক মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন।

এদিকে গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি খান আব্দুল হালিম সিদ্দিকী বলেন-নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর নিহতের স্বামী মোঃ রফিকুল ইসলাম রফিককে আটক করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন-স্থানীয় এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে যে, সকালে মোঃ রফিকুল ইসলাম ফজরের নামায পড়ে ঘরে এসেই দা দিয়ে কুপিয়ে তার স্ত্রীকে গুরুতর জখম করে। সে সময় ঘরে থাকা তার মেয়েরা বাধা দিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি। পরে স্থানীয় এলাকাবাসীরা ললিতা বেগমকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত এই কর্মকর্তা।

Please Share This Post in Your Social Media

এ বিভাগের আরো সংবাদ