মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:২৭ পূর্বাহ্ন

কুড়িগ্রামে আওয়ামীলীগ নেতা পিতা-পুত্রসহ ৪২জন ড্রেজার ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা

প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৬ আগস্ট, ২০২১

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলায় স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতা পিতা-পুত্র এবং জনপ্রতিনিধিসহ ৪২জন ড্রেজার ব্যবসায়ির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে আদালত। বুধবার ২৫আগস্ট দুপুরে কুড়িগ্রাম চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত রৌমারী আমলী আদালতের জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সুমন আলি এই আদেশ দেন। সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারী ইসমাঈল হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

অবৈধভাবে ব্রহ্মপুত্র

নদ,জিঞ্জিরাম,সোনাভরি,ধরনী নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলন অব্যাহত রাখায় কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার ড্রেজার মালিক সমিতির সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সুরুজ্জামাল, তার দুই ছেলে আতিকুর রহমান,আজিজুর

রহমান,যাদুরচর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড সদস্য বানিজ আলী, রৌমারী সদর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড সদস্য ইব্রাহিম খলিলসহ ৪২জন ড্রেজার ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেছে আদালত।

আদালতের আদেশ সূত্রে জানাযায়,উপজেলার বিভিন্ন নদ-নদীতে দীর্ঘ দিন ধরে অবৈধ ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলন করে আসছে একটি অসাধু বালু ব্যবসায়ী চক্র। এর ফলে নদী ভাঙন তীব্র আকার ধারণ করে সাধারণ মানুষ ভিটেমাটিসহ আবাদি জমি হারাচ্ছেন।

গত ২৩ এপ্রিল এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে বিষয়টি আদালতের নজরকারে। পরে আদালত গত ২ মে দ্যা কোড অব ক্রিমিনাল প্রসিডিউর-১৮৯৮ এর ১৯০(১) (সি) ও ১৫৬ ধারার অধিন রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)কে বিষয়টি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

ওই প্রতিবেদনে উপজেলার ৪২টি পয়েন্টে অবৈধ ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলনের সত্যতা পাওয়া গেছে বলে আদালতকে জানায় তদন্ত কর্মকর্তা। বালু উত্তোলনকারী ড্রেজার মালিকদের বৈধ কাগজপত্র নেই এবং রৌমারী উপজেলায় সরকারের বালু মহালও নেই বলে তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

আদালত সূত্র জানায়, ২৫ আগস্ট বুধবার পুলিশের দেওয়া প্রতিবেদন গ্রহণ করে বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন-২০১০ এর ৪ ধারায় অপরাধ আমলে নিয়ে আদালত স্ব-প্রণোদিত হয়ে উল্লেখিত ৪২টি পয়েন্টে চলমান ড্রেজার মালিককে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। একই সাথে আগামী ২১ সেপ্টেম্বর গ্রেফতারী পরোয়ানা তামিল প্রতিবেদনের দিন ধার্য করেন আদালত।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, অবৈধ ড্রেজার বসিয়ে বালু উত্তোলনের জন্য রৌমারী উপজেলার যাদুচর ইউনিয়নে অবৈধভাবে বালু ব্যবসায়ী চক্র ড্রেজার মালিক সমিতি নামে একটি সংগঠন গড়ে তুলেছেন। এই সমিতির সভাপতি সুরুজ্জামাল,সহ-সভাপতি যাদুরচর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বানিজ

আলী,সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলীসহ ৪২ জন ড্রেজার মালিকের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুন্তাছের বিল্লাহ বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি অফিসিয়াল ভাবে কাগজ পেলে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তিনি আরও বলেন, এই বিষয়ে বিজ্ঞ আদালত স্ব-প্রণোদিত হয়ে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছিলেন। সেই তদন্ত প্রতিবেদন বিজ্ঞ আদালতে দাখিল করা হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

এ বিভাগের আরো সংবাদ